• শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০১:৪০ পূর্বাহ্ন

শিশু সামিয়া হত্যা : এমপি ও পুলিশকে আল্টিমেটাম কাদের সিদ্দিকীর

অনলাইন ডেক্স / ৩৭ Time View
Update : মঙ্গলবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার দাড়িয়াপুর গ্রামে আলোচিত তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী সামিয়া হত্যার বিষয়ে পুলিশ এবং স্থানীয় এমপিকে সাত দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছেন কৃষক-শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তম।

তিনি বলেন, আমি পুলিশ এবং এমপি জোয়াহেরকে বলে গেলাম, আগামী সাত দিনের মধ্যে শিশু সামিয়ার হত্যার বিচার করতে হবে। তারা যদি দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয় তাহলে তাদেরও বিচার হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার দাড়িয়াপুর উত্তরপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে সামিয়া হত্যার বিচার দাবিতে আয়োজিত এক সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

পুলিশকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, এই শিশু মারা গেছে কমপক্ষে ছয় দিন অতিবাহিত হয়েছে। ভিকটিমের বাবা সন্দেহভাজনদের নামসহ থানায় অভিযোগ দেয়ার পরও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করতে পারেনি। পুলিশ যদি কাজ করতে না-ই পারে তাহলে তারা চলে যাক। খুনি কি প্রেসিডেন্ট? আওয়ামী লীগ করে? বিএনপি করে? সে যদি আমার আত্মীয়ও হয় তবুও তার বিচার করতে হবে।

বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেন, আমার মা গত ২০ বছর আগে মারা গেছেন। আমার মায়ের মৃত্যুতে আমি যেমন কষ্ট পেয়েছিলাম। শিশু সামিয়ার নির্মম হত্যার খবরে আমি ঠিক ততটাই কষ্ট পেয়েছি। তিনি বলেন, আমি এই দেশ চাইনি। আমি সেই দেশ চেয়েছিলাম যেখানে সাধারণ মানুষের সন্তানেরও নিরাপত্তা থাকবে। রাজা-বাদশাদের মত কেউ কারো মাথার ওপর দিয়ে যেতে পারবে না। তিনি বলেন, আমি একটা পিঁপড়ার ওপরে পা দিতেও চিন্তা করি। মুক্তিযুদ্ধের সময়ও করতাম এখনো করি। কারণ আমি ন্যায়নীতিতে বিশ্বাস করি।

স্থানীয়দের সচেতন করে বঙ্গবীর বলেন, আপনাদের কথা বলতে হবে। এই হত্যার প্রতিবাদ করতে হবে। বিচার চাইতে হবে। আজকে আপনারা কথা না বললে, প্রতিবাদ না করলে আপনাদের সন্তানের সাথেও এমন ঘটনা ঘটতে পারে। সুতরাং আর কোনো ঘটনা যাতে না ঘটে তাই এই হত্যার বিচার নিশ্চিত করতে হবে। আপনারা আমার সাথে থাকবেন কিনা সেটা আপনাদের বিষয়। কিন্তু এই হত্যার বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমি বসে থাকবো না।

এ সময় তিনি পুলিশকে নিহত সামিয়ার মা-বাবার নিরাপত্তা জোরদার করার কথা বলেন। উল্লেখ্য, গত ৮ সেপ্টেম্বর শুক্রবার দুপুরে উপজেলার দাড়িয়াপুর গ্রামে বাড়ি থেকে আধা কিলোমিটার দূরে এক ড্রেনে সামিয়ার ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এর আগে বুধবার স্কুল থেকে ফেরার পথে সামিয়া নিখোঁজ হয় এবং দুর্বৃত্তরা মোবাইলে মেসেজ দিয়ে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। এর ঠিক দু’দিন পরেই সামিয়ার লাশ উদ্ধার করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ