• শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ১২:০৮ পূর্বাহ্ন

ক্ষমতায় গেলে বাংলাদেশকে উন্নত দেশে পরিণত করবে জামায়াত : মুজিবুর রহমান

Reporter Name / ৩৬ Time View
Update : শনিবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২৩

জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমির ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান বলেছেন, জামায়াত রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় গেলে অর্থনৈতিক মুক্তির মাধ্যমে বাংলাদেশকে উন্নত দেশে পরিণত করবে, ইনশাআল্লাহ। নিশিরাতে ভোট ডাকাতির মাধ্যমে ক্ষমতায় আসা জালিম সরকার দেশটাকে কারাগারে পরিণত করেছে। আমিরে জামায়াত ডা. শফিকুর রহমান ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দসহ জামায়াতে ইসলামীর সকল স্তরের শত শত নেতাকর্মীকে অন্যায়ভাবে কারাগারে আটকিয়ে রাখা হয়েছে। আদালত থেকে জামিনলাভের পরও তাদেরকে মুক্তি দেয়া হচ্ছে না। উল্টো নতুন নতুন মিথ্যা ও সাজানো মামলা দিয়ে তাদেরকে পুনরায় আটকিয়ে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে। দেশে ন্যায় বিচারের বাণী ডুকরে ডুকরে কাঁদছে। দেশের বিচার ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে। আমরা জালিম সরকারের সকল প্রকার জুলুম-নির্যাতনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি

শনিবার (১৪ অক্টোবর) চুয়াডাঙ্গা জেলা জামায়াতের ভার্চুয়ালি আয়োজিত ভারপ্রাপ্ত জেলা আমির মাওলানা আজিজুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং সহকারী সেক্রেটারি অ্যাডভোকেট মাসুদ পারভেজ রাসেলের সঞ্চালনায় সহযোগী সদস্য সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লুটেরা সরকারের দলীয় লোকেরা হাজার হাজার কোটি টাকা লুটপাট করে বিদেশে পাচার করেছে। দেশের সকল আর্থিক প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম আকাশচুম্বী। জনগণ সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছে। এভাবে একটি দেশ চলতে পারে না। শান্তি-শৃঙ্খলা এবং ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে ধার্মিক, চরিত্রবান ও সৎ লোকদের হাতে ক্ষমতা থাকা প্রয়োজন। বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী সমাজ ও রাষ্ট্রের সকল স্তরে সৎ ও যোগ্য লোকের শাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশকে একটি জনকল্যাণমুখী স্বনির্ভর আদর্শ রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলতে চায়।

বিশেষ অতিথি জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও যশোর-কুষ্টিয়া অঞ্চল পরিচালক মোবারক হোসাইন বলেন, দেশে গণতন্ত্র, আইনের শাসন ও ন্যায় বিচার বলতে কিছু নেই। অবৈধভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য ফ্যাসিস্ট আওয়ামী সরকার মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে। জামায়াতে ইসলামী জনগণের ভোটাধিকার পুনরুদ্ধার করার লক্ষ্যে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে আন্দোলন করে যাচ্ছে। এই দাবি আদায়ে সরকারকে বাধ্য করার জন্য দল-মত-নির্বিশেষে সবাইকে একাত্ম হয়ে দুর্বার গণআন্দোলন গড়ে তুলতে হবে এবং সরকারের জেল-জুলুম, ভয়-ভীতি উপেক্ষা করে রাজপথে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।

বিশেষ অতিথি অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান বলেন, জালিম সরকারের যাঁতাকলে পৃষ্ঠ আর্ত-পীড়িত অসহায় মানুষগুলো আজ মহান রবের দরবারে ফরিয়াদ করে বলছে, হে আল্লাহ! এই জালিম জনপদ থেকে আমাদেরকে উদ্ধারের জন্য সাহায্যকারী পাঠাও। জামায়াতের সকল পর্যায়ের জনশক্তিকে মজলুমের পাশে দাঁড়াতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে ভারপ্রাপ্ত জেলা আমির মাওলানা আজিজুর রহমান বলেন, ইহকালীন কল্যাণ এবং পরকালীন মুক্তির জন্য ইসলামী আন্দোলনই একমাত্র উপায়। তিনি আমিরে জামায়াত ডা. শফিকুর রহমান, কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এবং চুয়াডাঙ্গা জেলা আমির মো: রুহুল আমিনসহ কারাগারে আবদ্ধ সকল নেতাকর্মীর দ্রুত মুক্তি দাবি করেন।

সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন জেলা সহকারি সেক্রেটারি মো: আব্দুল কাদের, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা আমির মো: বেলাল হোসাইন, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভা আমির অ্যাডভোকেট হাসিবুল ইসলাম, আলমডাঙ্গা উপজেলা আমির মো: দারুস সালাম, জীবননগর উপজেলা আমির মাওলানা সাজেদুর রহমান, দামুড়হুদা উপজেলা আমির মোহাম্মদ নায়েব আলীসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ