• মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:১৫ পূর্বাহ্ন

‘খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত বিদেশে নিতে হবে’

অনলাইন ডেক্স / ৩৩ Time View
Update : মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়াকে বাঁচাতে হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত বিদেশে নিতে হবে। সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার দিকে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার বিষয়ে তিনি এ কথা জানান। তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে বাঁচাতে হলে এখন উন্নত চিকিৎসা দরকার। ডাক্তাররা বলেছেন দেশে সুচিকিৎসা দেওয়া সম্ভব না। আমরা অনেক দিন ধরেই তাকে বিদেশে নেওয়ার কথা বলছি। কিন্তু সরকার গুরুত্ব দিচ্ছে না।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার শ্বাসকষ্ট। রবিবার মাঝরাতে করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) নিয়ে অক্সিজেন দিয়ে সেটা সমাধানের চেষ্টা করা হয়েছে। বর্তমানে খালেদা জিয়ার অবস্থা গুরুতর। এখন একেবারে শেষ সময় চলে এসেছে। অনতিবিলম্বে বিদেশে নেওয়া দরকার, না হলে তাকে বাঁচানো যাবে না। যদিও সিসিইউ থেকে তাকে কিছুক্ষণ আগে কেবিনে আনা হয়েছে। এতে স্বস্তির কোনো কারণ নেই, এটাকে স্থিতিশীলও বলা যাবে না। তার শারীরিক অবস্থা উঠানামা করছে।

এর আগে, এ দিন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় তাকে করোনারি কেয়ার ইউনিট (সিসিইউ) থেকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়। বিএনপির মিডিয়া ইউংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সকালে মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শে কেবিনে নিয়ে আসা হয়েছে।

এর আগে, রোববার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাত ২টার দিকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবনতি হওয়ায় তাকে কেবিন থেকে করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) নেওয়া হয়। তার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা পর্যালোচনায় করতে এ দিন রাত সাড়ে ১১টায় দেশি-বিদেশি চিকিৎসকদের সমন্বয়ে গঠিত মেডিকেল বোর্ড বৈঠকে বসে। বৈঠকে খালেদা জিয়াকে সিসিইউতে নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

লিভার সিরোসিসসহ নানান রোগে আক্রান্ত খালেদা জিয়া। তার মেডিকেল বোর্ডের চিকিৎসকরা একাধিকবার সংবাদ সম্মেলনে করে বলেছেন, অতি দ্রুত তার লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্ট (প্রতিস্থাপন) করা দরকার। যেটা বাংলাদেশে সম্ভব নয়। এ জন্য খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশ নেওয়ার অনুমতি চেয়ে সরকারের কাছে একাধিকবার আবেদন করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ